করোনা মোকাবেলায় শেরপুর জেলা প্রশাসকের ত্রাণ তহবিলে দান করলেন শিক্ষার্থী, এক নারী ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান

সুজন সেন, নিজস্ব প্রতিবেদক, শেরপুর
বাংলারচিঠিডটকম

করোনাভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া হতদরিদ্রের সহায়তার জন্য শেরপুর জেলা প্রশাসকের খোলা ত্রাণ তহবিলে এক শিক্ষার্থী, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় আহত এক নারী ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অনুদান প্রদান করেছেন। ২৪ এপ্রিল বিকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষ রজনীগন্ধা হল রুমে ত্রাণ সমন্বয় সভা শেষে জেলা প্রশাসকের হাতে ওইসব দানের টাকা তুলে দেওয়া হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সড়ক ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সচিব নজরুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও হুইপ আতিউর রহমান আতিক, সাংসদ প্রকৌশলী ফজলুর রহমান এবং পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীমসহ জনপ্রতিনিধি ও সরকারি অন্যান্য কর্মকর্তারা।

এ দিন ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থী দীপিকা পহেলা বৈশাখ উদযাপনের জন্য পোশাক কেনার সঞ্চিত এক হাজার ৮৭০ টাকা ত্রাণ তহবিলে দান করেন।

অন্যদিকে ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় আহত জেলার নকলা উপজেলার কেজাইকাটা গ্রামের সৈয়দা উম্মে কুলসুম রেনু দুই লাখ টাকা দেন। রেনু জানান, আহত হওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে ২০ লাখ টাকা এফডিআর করে দেন। ওই টাকার লভ্যাংশ থেকে এ টাকা দান করেন। তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা।

এছাড়া জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবীর রুমান তার এক মাসের বেতনের ৫৬ হাজার টাকা জেলা প্রশাসকের হাতে তুলে দেন।

এ জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব ।

Views 22 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad