হারিয়ে যাওয়া সজল ফিরে গেলো নিজ ঠিকানায়

হারিয়ে যাওয়া শিশু সজলকে তার বাবা-মায়ের কাছে তুলে দেওয়া হয়। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

নিজস্ব প্রতিবেদক, জামালপুর
বাংলারচিঠিডটকম

হারিয়ে যাওয়া ফুটফুটে শিশু সজল অবশেষে জামালপুর থেকে ফিরে গেলো নিজ ঠিকানায়। ২ ফেব্রুয়ারি শেখ রাসেল প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্র থেকে সজল ওরফে হোসেনকে (১২) তার বাবা, মায়ের হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে দেওয়া হয়।

শিশু হস্তান্তরকালে অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপপরিচালক রাজু আহম্মেদ, উন্নয়ন সংঘের মানবসম্পদ বিভাগের পরিচালক ও শেখ রাসেল প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্র পরিচালনা কমিটির সদস্য জাহাঙ্গীর সেলিম, কেন্দ্রের উপপ্রকল্প পরিচালক শুভঙ্কর ভট্টাচার্য, জেলা প্রবেশন কর্মকর্তা আব্দুছ সালাম, মনোবিজ্ঞানী মনির হোসেন প্রমুখ।

জানা যায়, গত ১৯ জানুয়ারি জামালপুর জিআরপি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তাপস কুমার পণ্ডিত উন্নয়ন সংঘের মানবসম্পদ বিভাগের পরিচালক জাহাঙ্গীর সেলিমকে শিশুটি সম্পর্কে আবহিত করেন। পরে উন্নয়ন সংঘের পক্ষে উপজেলা ব্যবস্থাপক সংস্থার শিশু সুরক্ষা প্রকল্পের আওতায় জিআরপি থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। সেখান থেকে শিশুটির সুরক্ষার জন্য তাকে শেখ রাসেল প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্রে রাখা হয়।

সজলের অভিভাবকের সন্ধান চেয়ে সামাজিত যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক থেকে শুরু করে শেখ রাসেল কর্তৃপক্ষ বিভিন্নভাবে যোগাযোগ করে। অবশেষে খোঁজ মিলে সজলের বাবা,মায়ের। ২ ফেব্রুয়ারি বাবা কালু মাতুব্বর এবং মা শিখা বেগম জামালপুর আসলে যথাযথ প্রমাণপত্র যাছাই করে সন্তানকে তাদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

সজল মাতুব্বরের বাবা কালু মাতুব্বর এই প্রতিনিধিকে জানান, গত ১২ জানুয়ারি ছেলে সামান্য শাসন করার জন্য সে বাড়ি ছেড়ে চলে আসে। এ ব্যপারে তারা ঢাকা খিলগাঁও থানায় একটি সাধারণ ডায়েরিও করেছেন। এছাড়া ঢাকায় সজলের ছবি দিয়ে পোস্টারও ছাপিয়েছে।

শিখা বেগম কান্না জড়িত কণ্ঠে বলেন, আমি অন্যের বাসায় কাজ করি ওর বাবা রিকশা চালায়। অভাবের সংসারে ছেলেকে তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত পড়ানোর পর লেদ মেশিনে কারখানায় কাজে দেওয়া হয়েছে। সজলেরা দুই ভাই এক বোন। ছেলেকে হারিয়ে আমরা পাগলের মতো হয়ে গেছি।

বাবা ও মা উভয়েই জানান, শিশু সন্তানের ওপর শারীরিকভাবে শাসন করা ঠিক হয় নাই। তারা সন্তানের ওপর আরো কোনো দিন হাত তুলবে না।

সজলদের গ্রামের বাড়ি মাদারীপুরে হলেও জীবিকার তাগিদে দীর্ঘদিন যাবৎ পরিবার পরিজনের সাথে ঢাকার খিলগাঁও সিপাইবাগে বসবাস করছে।

sarkar furniture Ad
Green House Ad