বকশীগঞ্জে ইউএনও’র উদ্যোগে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা স্বেচ্ছাশ্রমে সংস্কার

বাট্টাজোড় ইউনিয়নের জিন্নাহ বাজার এলাকায় স্বেচ্ছাশ্রমে রাস্তা সংস্কার কাজের উদ্বোধন করেন ইউএনও আ. স. ম. জামশেদ খোন্দকার। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

বকশীগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি
বাংলারচিঠিডটকম

জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলায় গত বছরের ভয়াবহ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামীণ রাস্তা সংস্কারের জন্য ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আ. স. ম. জামশেদ খোন্দকার।

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তাগুলোর মধ্যে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এসব রাস্তা সংস্কারের জন্য স্বেচ্ছাশ্রম দিচ্ছেন স্ব স্ব এলাকাবাসী। আর এ স্বেচ্ছাশ্রমকাজে উদ্বুদ্ধ করছেন ইউএনও নিজে। ইউএনও আ. স. ম. জামশেদ খোন্দকার নিজে মাটি কেটে উৎসাহিত করছেন স্বেচ্ছাসেবী মানুষদের।

২৭ জানুয়ারি বাট্টাজোড় ইউনিয়নের জিন্নাহ বাজার এলাকায় স্বেচ্ছাশ্রমে রাস্তা সংস্কার কাজের উদ্বোধন করেন ইউএনও আ. স. ম. জামশেদ খোন্দকার।

এ সময় উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) হাসান মাহবুব খান, বাট্টাজোড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক তালুকদার, প্যানেল চেয়ারম্যান আবদুর রহিম, ইএসডিও’র স্বপ্ন প্রকল্পের কর্মসূচি কর্মকর্তা মো. শহিদুল্লাহসহ স্থানীয় ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বন্যায় উপজেলার সাতটি ইউনিয়নে গ্রামীণ রাস্তাঘাটের ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সরকারি বরাদ্দের অপ্রতুলতার কারণে অনেক সময় সব রাস্তা এক সাথে মেরামত করা সম্ভব হয় না। তাই সরকারি বরাদ্দের পাশাপাশি স্বেচ্ছাশ্রমে রাস্তা সংস্কারের জন্য উদ্যোগ নেওয়া হয়।

স্থানীয় সরকার বিভাগের স্বপ্ন প্রকল্প ও অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচি (ইজিপিপি) প্রকল্পের শ্রমিকরা ও স্বেচ্ছাশ্রমিকদের পাশাপাশি তারাও রাস্তা সংস্কারে অংশ নিচ্ছেন।

এতে করে প্রতিদিন তিনশতাধিক নারী-পুরুষ স্বেচ্ছাশ্রমে অংশ নিয়ে রাস্তা সংস্কারে অবদান রাখবেন।

বকশীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আ. স. ম. জামশেদ খোন্দকার জানান, সরকারের পাশাপাশি স্থানীয় জনগোষ্ঠিকে কাজে লাগিয়ে রাস্তা সংস্কারের কাজে স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ রয়েছে। তিনি জানান, প্রতিটি ইউনিয়নেই এই উদ্যোগ বাস্তবায়ন করা হবে।

sarkar furniture Ad
Green House Ad