জামালপুর পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন

বক্তব্য রাখেন পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কাজী আ. খ. ম. মহিউল ইসলাম। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

শফিকুল ইসলাম শফিক, জামালপুর
বাংলারচিঠিডটকম

জামালপুর জেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের নবনির্মিত ভবনের উদ্বোধন করা হয়েছে। ২২ জানুয়ারি সকালে শহরের বাজারিপাড়ায় জেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের নতুন ভবন মিলনায়তনে উদ্বোধনী উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করে জেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্তৃপক্ষ।

পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (পদমর্যাদা-১) কাজী আ. খ. ম. মহিউল ইসলাম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন করেন ও বক্তব্য রাখেন।

ময়মনসিংহ বিভাগীয় পরিবার পরিকল্পনা পরিচালক মোহাম্মদ আবদুল আউয়ালের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পরিবার পরিকল্পনার যুগ্মসচিব (পরিচালক অর্থ ও লাইন্স ডাইরেক্টর ফিল্ড সার্ভিসেস ডেলিভারি) চিকিৎসক সরোয়ার বারী, জামালপুরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হক, ময়মনসিংহ বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) চিকিৎসক আবুল কাসেম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক আহম্মেদ চৌধুরী, জামালপুর পৌরসভার মেয়র মির্জা সাখাওয়াতুল আলম মনি, সিভিল সার্জন চিকিৎসক গৌতম রায়, জামালপুর পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের উপপরিচালক চিকিৎসক সাজদা-ই-জান্নাত প্রমুখ।

এর আগে ফিতা কেটে জেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের নবনির্মিত ভবনের উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথিসহ অতিথিবৃন্দ। আলোচনা সভা শেষে কেক কাটা হয় এবং অতিথিদের সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। পরে নবনির্মিত ভবনের পাশে বৃক্ষরোপণ করা হয় ও পরিবার পরিকল্পনা প্রাক্তণ কার্যালয় পরিদর্শন করেন প্রধান অতিথিসহ অতিথিবৃন্দ।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের আওতায় তৈরি হচ্ছে সকল পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম মুজিববর্ষের সূচনা লঘ্নে জামালপুরের জেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের ভবনটি উদ্বোধন করবো। আমরা যেখানেই সুযোগ পাই আমাদের পরিবার পরিকল্পনার সকল কর্মকর্তা কর্মচারীরা যখন মিলিত হয় তখন তাদের সাথে মতবিনিময় করে সকল সমস্যা সম্পর্কে আলোচনা ও সমাধানের চেষ্টা করে থাকি। আমার দেশের সকল পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা কর্মচারীদের এই মেসেজটি দিয়েছি যে আমরা যারা উপরে বসে আছি তারা শুধু শাসন করার জন্য নয়, আমরা আপনাদের পাশে থেকে সকল সমস্যা সমাধার করতে চাই। সারা বাংলাদেশেই পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রগুলোতে জনবলের অভাব রয়েছে সত্যি, কিন্তু অচিরেই সেই জনবলের অভাব পুরনের লক্ষ্যে মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক আমরা জনবল নিয়োগ প্রক্রিয়া কাজ অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে এসেছি। আগামী দিনে সেই সকল শূন্যপদগুলো পূরণে যথা যথা ব্যবস্থা গ্রহণপূর্ব শূন্যপদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। এ অঞ্চলের মা ও শিশুদের সকল সেবা নিশ্চিত করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান প্রধান অতিথি।

sarkar furniture Ad
Green House Ad