ফুলকোচা ইউনিয়ন পরিষদের ভবন উদ্বোধন

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক সংসদ সদস্য মির্জা আজম। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

শফিকুল ইসলাম শফিক, জামালপুর
বাংলারচিঠিডটকম

জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলার ৮ নম্বর ফুলকোচা ইউনিয়ন পরিষদের ভবন উদ্বোধন করা হয়েছে। ২১ জানুয়ারি বিকেলে ফুলকোচা ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে নবনির্মিত ভবনের উদ্বোধন উপলক্ষে আলোচনা সভায় আয়োজন করে ফুলকোচা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ।

ফুলকোচা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক আব্দুল মান্নান সরকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ও নতুন ভবন উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম।

সংসদ সদস্য মির্জা আজম বলেন, জামালপুরের মানুষ বার বার আওয়ামী লীগের নৌকায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগের এমপিদের সংসদে পাঠিয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনাকে উপহার দেন। আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা সরকার গঠন করে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে জামালপুরের মানুষদেরকেউ উপহার প্রদান করেন। তারই ধারাবাহিকতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টানা দ্বিতীয়বারের ক্ষমতার প্রথম সময়ে জামালপুরকে উন্নত সমৃদ্ধ করতে ৫০ হাজার কোটি টাকার বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নে অর্থ বরাদ্দ দিয়েছে। জামালপুরের মানুষকে বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী উপহার দিয়েছিলেন। টানা তৃতীয়বার ক্ষমতায় এসে জামালপুরকে আরো সমৃদ্ধ করতে নতুন নতুন বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ হাতে নিয়েছে। আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় কাউন্সিল অধিবেশনে আওয়ামী লীগ পুন:রায় শেখ হাসিনাকে সভাপতি নির্বাচিত করেন। তার এই নতুন কমিটিতে আমাকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে জামালপুরবাসীকে উপহার প্রদান করেছেন।

তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্ব জরিপে বিশ্বের তৃতীয়তম সৎ প্রধানমন্ত্রী। বাংলাদেশে একমাত্র আওয়ামী লীগ সরকার যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করতে স্বক্ষম হয়েছে। শেখ হাসিনা বাংলাদেশের প্রতিটি বিষয়ে ব্যাপক উন্নয়ন সাধন করে বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশের সম্মান বৃদ্ধি করেছেন। আওয়ামী লীগ সরকার ছাড়া আর কোন সরকার বাংলাদেশের জন্য এতো উন্নয়ন করতে পারেনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্রিয় ক্ষমতায় থাকলে বাংলাদেশের মানুষের ভাগ্য উন্নয়ন হয়। তাই আওয়ামী লীগ সরকারের প্রতিটি কাজে আওয়ামী লীগের সকল নেতৃদের সরকারকে সহায়তা করতে পাশে থাকার আহ্বান জানান তিনি।

সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আইনজীবী মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও মেলান্দহ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মো. কামরুজ্জামান, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক সালে সফিক গেন্দা, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ফুলকোচা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনজু মনোয়ারা বেগম হেনা, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছানোয়ার হোসেন ছানু, মেলান্দহ পৌরসভার মেয়র শফিক জাহেদী রবিন, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও মেলান্দহ পৌরসভার সাবেক মেয়র হাজী দিদার পাশা, মেলান্দহ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক সুজা, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জিন্নাহ, ৮ নম্বর ফুলকোচা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মমিনুল ইসলাম বাবু প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মেলান্দহ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুজ্জামান জুয়েল, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আতাউর রহমান মানিকসহ ফুলকোচা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ফুলকোচা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্মআহ্বায়ক মামুনুর রশিদ মামুন।

sarkar furniture Ad
Green House Ad