ইন্দোনেশিয়ায় শক্তিশালী ভূমিকম্পে নিহত ১

বাংলারচিঠিডটকম ডেস্ক : ইন্দোনেশিয়ার পূর্বাঞ্চলের প্রত্যন্ত মালুকু দ্বীপপুঞ্জে ১৪ জুলাই ৭.৩ তীব্রতার শক্তিশালী এক ভূমিকম্পের আঘাতে কমপক্ষে একজন নিহত হয়েছে। রিখটার স্কেলে ৭.৩ তীব্রতার ভূমিকম্পটি আঘাত হানার পর সেখান থেকে কয়েকশ’ লোককে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। সরকারি এক কর্মকর্তা একথা জানান। খবর এএফপি’র।

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা জানায়, স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬ টা ২৮ মিনিটে নর্থ মালুকু প্রদেশের তার্নাত শহরের প্রায় ১৬৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণ পশ্চিমে ভূপৃষ্ঠের স্বল্প গভীরে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। এতে ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থলের সন্নিকটে সাউথ হেলমেহারা এলাকায় প্রায় ১৬০ টি ঘরবাড়ি ধসে পড়ে। ভূমিকম্পে এক নারীর মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করা হয়েছে।

১৫ জুলাই স্থানীয় দুর্যোগ মোকাবেলা সংস্থার কর্মকর্তা ইহসান সুবুর এএফপি’কে বলেন, ‘ওই নারী তার ঘর ধসে চাপা পড়ে মারা যায়।’

এ ঘটনায় কয়েশ’ লোককে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সরকারি ভবন ও উঁচু স্থানে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

সুবুর বলেন, ‘সেখানে এখনো কিছুক্ষণ পরপর ভূমিকম্প অনুভূত হওয়ায় লোকজন আতংকগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। এতে তারা তাদের ঘরবাড়িতে ফিরে যেতে সাহস পাচ্ছে না।’

স্থানীয় সরকারি কর্মকর্তারা নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া লোকজনকে প্রয়োজনীয় সহায়তা দেয়া শুরু করেছে।

গত সপ্তাহে নর্থ মালুকু প্রদেশে রিখটার স্কেলে ৬.৯ তীব্রতার একটি ভূমিকম্প আঘাত হানলেও তাতে তেমন কোন ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি।

এদিকে গত বছর সুলাওয়েসি দ্বীপের পালুতে রিখটার স্কেলে ৭.৫ তীব্রতার একটি শক্তিশালী ভূমিকম্প এবং এরফলে সৃষ্ট সুনামিতে দুই হাজার ২শ’ লোক প্রাণ হারায় এবং আরো এক হাজার লোককে নিখোঁজ ঘোষণা করা হয়।

এর আগে ২০০৪ সালের ২৬ ডিসেম্বর সুমাত্রা উপকূলে ৯.১ তীব্রতার ভয়াবহ ভূমিকম্প ও সুনামিতে ইন্দোনেশিয়ার এক লাখ ৭০ হাজারসহ ভারত মহাসাগর অঞ্চলে প্রায় ২ লাখ ২০ হাজার লোক প্রাণ হারায়।সূত্র : বাসস

সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad