বকশীগঞ্জে বন্যা, পানিবন্দি মানুষেরা দুর্ভোগে

বন্যায় প্লাবিত হচ্ছে বকশীগঞ্জের বিস্তীর্ণ নিচু এলাকা। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

বকশীগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি
বাংলারচিঠিডটকম

জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলায় উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও বন্যার পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।

কয়েকদিনের টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলের কারণে বন্যার বকশীগঞ্জ উপজেলায় সাধুরপাড়া ইউনিয়ন ও মেরুরচর ইউনিয়ন বন্যায় কয়েকটি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। অপরদিকে পাহাড়ি ঢলের কারণে ধানুয়া কামালপুর ইউনিয়নের পাঁচটি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।

সাধুরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহমুদুল আলম বাবু জানান, বন্যায় তার ইউনিয়নেরমদনের চর, শেখ পাড়া, চরকামালের বার্তী, কতুবের চর , চর গাজীরপাড়া, উত্তর আচ্চা কান্দি , কামালের বার্তী , বিলেরপাড়, আইরমারী গ্রামের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এতে করে মানুষের মধ্যে বন্যা আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। বন্যার পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় বালুগাও দশানী নদীর উপর ব্রিজের নিচ থেকে চর কামালের বার্তী কাঁচা রাস্তাটি ভেঙে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে।

মেরুরচর ইউনিয়নের মাদারের চর, ঘুঘরা কান্দি, মাইছানিরচর, ভাটিকলকিহারা, উজান কলকিহারা, পূর্ব কলকিহারা, ফকিরপাড়া, ফারাজিপাড়া গ্রামেও পানিতে সয়লাব হয়েছে। এসব গ্রামের মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। পানিবন্দি হওয়ায় মানুষের মধ্যে দুর্ভোগ বাড়ছে। বন্যা কবলিত এলাকার মানুষের মধ্যে দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানির অভাব।

অপরদিকে ধানুুয়া কামালপুর ইউনিয়নে গারো পাহাড়ের সোমনাথপাড়া, সাতানিপাড়া, বালিঝুড়ি, কনেকান্দা ও লাউচাপড়া গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এখন পর্যন্ত সরকারিভাবে কোনো ত্রাণ সহায়তা প্রদান করা হয়নি বন্যা কবলিত এলাকায়।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) হাসান মাহবুব খান জানান, বন্যার বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। একই সাথে ত্রাণের চাহিদাও পাঠানো হয়েছে।

সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad