কৌতুক অভিনেতা টেলিসামাদ আর নেই, ৭ এপ্রিল দাফন

বাংলারচিঠিডটকম ডেস্ক : জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা টেলিসামাদ মারা গেছেন ( ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না লিল্লাহি রাজিউন)। ৬ এপ্রিল দেড়টায় রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

তার বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। তার দুই ছেলে এবং দুই মেয়ে । বড় ছেলে যুক্তরাষ্ট্রে থাকেন।

৭ এপ্রিল মুন্সিগঞ্জের নয়াগাঁও এর পারিবারিক কবর স্থানে জানাজা শেষে তার মরদেহ দাফন করার কথা।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে ৫ এপ্রিল বাসায় অসুস্থ হওয়ার পর তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তিনি হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন ছিলেন।

ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেতা টেলি সামাদকে এর আগে ২০১৭ সালে যুক্তরাষ্ট্রে বাইপাস সার্জারি করা হয়। এরপর ২০১৭ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর তিনি কিছুটা সুস্থ হয়ে দেশে ফেরেন। কিন্তু দেশে আসার পর অক্টোবর ও নবেম্বরে দু’দফা স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয় টেলিসামাদকে। গত বছরের ২০ অক্টোবর জরুরি অস্ত্রোপচার করা হয় তার বাঁ পায়ের বৃদ্ধাঙ্গুলে। সে সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টেলিসামাদের পাশে এসে দাঁড়ান এবং চিকিৎসা বাবদ আর্থিক অনুদান দেন।

টেলিসামাদের আসল নাম আবদুস সামাদ। তবে দর্শকদের কাছে ‘টেলিসামাদ’ নামে তিনি বেশি পরিচিতি পান।

১৯৪৫ সালের ৮ জানুয়ারি মুন্সিগঞ্জের নয়াগাঁও এলাকায় তিনি জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৩ সালে পরিচালক নজরুল ইসলামের ‘কার বউ’ চলচ্চিত্রে তিনি প্রথম অভিনয় করেন। চার দশকে প্রায় ছয়শ’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। টেলিসামাদ শেষ কাজ করেছেন অনিমেষ আইচের ‘জিরো ডিগ্রি’ ছবিতে। অভিনয়ের বাইরে অর্ধশতাধিক চলচ্চিত্রে তিনি গান গেয়েছেন।

শুধু চলচ্চিত্র অভিনয় নয় টেলিভিশনেও বিভিন্ন নাটকে নানা ধরনের চরিত্রে তাঁর দুর্দান্ত অভিনয় দর্শকের মনে এখনও স্থান করে আছে। আশির দশকে প্রয়াত আমজাদ হোসেনের লেখা প্রতি ঈদের বিশেষ নাটকে টেলিসামাদের উপস্থিতি এখনও দর্শকদের স্মৃতির দরজায় কড়া নারে।

টেলি সামাদ পড়াশোনা করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলায়। একটি ছবির সঙ্গীত পরিচালনাও করেছেন তিনি। সূত্র : বাসস

sarkar furniture Ad
Green House Ad