প্রবীণ সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীরের প্রতি জামালপুরের সাংবাদিকদের শ্রদ্ধাঞ্জলি

সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীর

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, জামালপুর
বাংলারচিঠি ডটকম

প্রবীণ সাংবাদিক জামালপুরের কৃতী সন্তান আমানুল্লাহ কবীরের মরদেহ জামালপুরে আনা হয়েছে। ১৬ জানুয়ারি রাতে তাঁর মরদেহ জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলার ফুলকোচা ইউনিয়নের রেখিরপাড়া গ্রামে তাঁর বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ১৭ জানুয়ারি সকালে নামাজে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীরের মরদেহ ১৬ জানুয়ারি সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে তাঁর গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার সময় জামালপুর প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে নেয়া হয় তাঁর মরদেহ। জামালপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি দৈনিক জনকণ্ঠের সাংবাদিক আজিজুর রহমান ডল, সহসভাপতি সময়টিভির সাংবাদিক মো. জাহাঙ্গীর আলম ও সাধারণ সম্পাদক ইন্ডিপেন্ডেন্ট টিভির সাংবাদিক দুলাল হোসাইন, কবি ও সাংবাদিক সাযযাদ আনসারী, জামালপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বিডিনিউজটোয়েন্টিফোরডটকম ও এটিএনবাংলার সাংবাদিক মো. লুৎফর রহমানসহ জামালপুর প্রেসক্লাবের সকল কর্মকর্তা ও সদস্য এবং জেলায় কর্মরত সর্বস্তরের সাংবাদিকরা আমানুল্লাহ কবীরের কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানান।

প্রয়াত সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীরের প্রতি শ্রদ্ধা জানান জামালপুরের সর্বস্তরের সাংবাদিকরা। ছবি : মাহমুদুল হাসান মুক্তা

জামালপুরের প্রবীণ সাংবাদিক এ এ কে মাহমুদল হাসান দারাসহ জামালপুর জেলা প্রেসক্লাবের কর্মকর্তা, সদস্য ও সাংবাদিকবৃন্দরাও সেখানে সাংবাদিক আমানুল্লাহ আমানের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনায় মোনাজাতের আগে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এ ছাড়াও জামালপুরের বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন, সুধীজন তাকে শ্রদ্ধা ও একনজর দেখতে প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে ভিড় করেন। এরপর রাতেই তাঁর মরদেহ তাঁর গ্রামের বাড়ি জেলার মেলান্দহ উপজেলার ফুলকোচা ইউনিয়নের রেখিরপাড়া গ্রামে নিয়ে যাওয়া হয়।

তাঁর পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ডায়াবেটিস ও লিভারের নানা জটিলতায় বেশকিছু দিন ধরে চিকিৎসাধীন ছিলেন সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীর। অসুস্থতার কারণে দুই সপ্তাহ আগে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ১৫ জানুয়ারি দিবাগত রাত ১টার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। তাঁর বয়স হয়েছিল ৭২ বছর। তিনি স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়েসহ অনেক আত্মীয়স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে যান।

প্রয়াত সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীরের ছেলে ইন্ডিপেন্ডেন্ট টিভি চ্যানেলের প্রযোজক (বার্তা) শাতিল কবীর জানান, ১৭ জানুয়ারি সকাল ১০টায় গ্রামের বাড়ি মেলান্দহের রেখিরপাড়ায় নামাজে জানাজা শেষে তার বাবা সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীরকে তাদের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে। তিনি তাঁর বাবার জানাজায় অংশ নিতে সবার প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

প্রয়াত সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীরের প্রতি শ্রদ্ধা জানান জামালপুরের সর্বস্তরের সাংবাদিকরা। ছবি : বাংলারচিঠি ডটকম

প্রসঙ্গত, সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীর ১৯৪৭ সালের ২৪ জানুয়ারি জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলার ফুলকোচা ইউনিয়নের রেখিরপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি মৃত্যুর আগ পর্যন্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল বিডিনিউজের জ্যেষ্ঠ সম্পাদক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি হিসেবে সাংবাদিকদের অধিকার আদায় আন্দোলনের পাশাপাশি এরশাদের সামরিক শাসনবিরোধী আন্দোলনেও পেশাজীবীদের মধ্যে নেতৃত্বের কাতারে ছিলেন তিনি। সাড়ে চার দশকের সাংবাদিকতা জীবনে আমানুল্লাহ কবীর দৈনিক আমার দেশ ও দ্যা টেলিগ্রাফের (বর্তমানে বিলুপ্ত) প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ছিলেন। এ ছাড়া বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার (বাসস) ব্যবস্থাপনা সম্পাদক, দৈনিক ইন্ডিপেনডেন্টের প্রতিষ্ঠাকালীন নির্বাহী সম্পাদক ও ডেইলি স্টারের শুরুর দিকে বার্তা সম্পাদক ছিলেন।

এদিকে বাংলারচিঠি ডটকম এর প্রকাশক মোহাম্মদ মাইনুল ইসলাম মুনু ও সম্পাদক জাহাঙ্গীর সেলিম জামালপুরের কৃতী সন্তান প্রয়াত সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীরের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেছেন। একই সাথে তারা প্রয়াত সাংবাদিকের শোক সন্তপ্ত পরিবারের সকল সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

Views 19 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad