মার্কিন সরকারের হেফাজতে দ্বিতীয় গুয়াতেমালা শরণার্থী শিশুর মৃত্যু

বাংলারচিঠি ডটকম ডেস্ক॥
মার্কিন সরকারের হেফাজতে থাকা গুয়াতেমালার আট বছর বয়সী শরণার্থী শিশু ২৫ ডিসেম্বর মারা গেছে। ইউএস কাস্টমস অ্যান্ড বর্ডার প্রটেকশন একথা জানিয়েছে। এই নিয়ে চলতি মাসে মার্কিন শরণার্থী আটককেন্দ্রে গুয়েতেমালার দ্বিতীয় শিশুর মৃত্যু হলো।

সংস্থাটি জানায়, ওই বালক ও তার পিতাকে আটক করা হয়েছিল। শিশুটি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে সোমবার তাকে নিউ মেক্সিকো মেডিকেল সেন্টারে পাঠানো হয়। স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর জানা গেছে তার ঠান্ডা লেগেছে। তবে পরে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। খবর বার্তা সংস্থা এএফপি’র।

শিশুটির বমি শুরু হলে তাকে আবারও হাসপাতালে নেয়া হয়। মাঝরাতের পরপরই সে মারা যায়।

সিবিপি জানিয়েছে, তারা এই মৃত্যুর কারণ জানতে পারেনি।

শিশুটির মৃত্যুর খবরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ব্যাপক ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানানো হয়। এই ঘটনার মাত্র কয়েকদিন আগে গুয়াতেমালার একটি বালিকা প্রায় একইভাবে মারা যায়।

টেক্সাসের ডেমোক্র্যাটিক দলের কংগ্রেস সদস্য মার্ক ভিয়েসেই বলেন, ‘প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে থাকা আরো একটি শিশু মারা গেল।’ তিনি আরো বলেন, ‘বড়দিনে এ ধরনের মর্মান্তিক ঘটনা শুনা খুবই পীড়াদায়ক।’

নিউইয়র্কে ডেমোক্র্যাটিক দলের নারী কংগ্রেস সদস্য নাদিয়া ভেলাজকুয়েজ বলেন, ‘সিবিপি হেফাজতে থাকা দ্বিতীয় শিশুর মৃত্যুর খবরে অত্যন্ত দুঃখ পেয়েছি।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা অবশ্যই এই ধরনের ঘটনা জবাবদিহিতার আওতায় আনতে চাই। আমরা প্রশাসনের ঘৃণামূলক ও বিপজ্জনক অভিবাসন বিরোধী নীতির অবসান চাই।’
সূত্র : বাসস

সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad