জামালপুরে স্বেচ্ছাসেবকলীগকর্মী জুয়েলকে জবাই করে হত্যা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, জামালপুর
বাংলারচিঠি ডটকম

জামালপুর শহর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সদস্য মো. জুয়েলকে (৩২) জবাই করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। ২২ ডিসেম্বর দুপুরে জেলার মেলান্দহ থানার পুলিশ মেলান্দহ উপজেলার মধ্যেরচরে ঝিনাই নদীর পাড় থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করেছে। নিহত জুয়েল জামালপুর পৌরসভার বামুনপাড়া এলাকার আব্বাস আলীর ছেলে।

পুলিশ ও নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ২২ ডিসেম্বর সকালে জেলার মেলান্দহ উপজেলার মধ্যেরচরে ঝিনাই নদীর পাড়ে এক ব্যক্তির গলাকাটা মরদেহ দেখতে পেয়ে থানায় খবর দেয় স্থানীয় লোকজন। মেলান্দহ থানার পুলিশ দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ওই মরদেহ উদ্ধার করে জামালপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। পরে নিহতের স্বজনরা হাসপাতালের মর্গে থাকা মরদেহটি জুয়েলের বলে শনাক্ত করেন। তার গলাকাটা এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুরিকাঘাতের ক্ষতচিহ্ন রয়েছে। ২১ ডিসেম্বর রাত থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দুর্বৃত্তরা তাকে জবাই করে হত্যার পর মরদেহ ঝিনাই নদীর পাড়ে নির্জন স্থানে ফেলে রেখে যায় বলে পুলিশ ও তার স্বজনরা ধারণা করছেন।

এদিকে জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি সৈয়দ তানভির আহাম্মেদ বাংলারচিঠি ডটকমকে বলেন, ‘নিহত জুয়েল জামালপুর শহর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সদস্য ছিলেন। খুনিদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।’

মেলান্দহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গাজী মো. সাখাওয়াত হোসেন বাংলারচিঠি ডটকমকে বলেন, ‘ময়নাতদন্তের জন্য নিহত জুয়েলের মরদেহ জামালপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হবে।’

  ফেসবুকে শেয়ার করুন!
সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad