জাতীয় নির্বাচনে অংশ নিতে সকল রাজনৈতিক দলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি

বাংলার চিঠি ডটকম ডেস্ক॥
রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ২৫ সেপ্টেম্বর দেশ ও জনগণের কল্যাণে আগামী জাতীয় নির্বাচনে অংশ নিতে দেশের সকল রাজনৈতিক দলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

রাষ্ট্রপতি তাঁর নিজ জেলা কিশোরগঞ্জে পাঁচদিনের সফর কর্মসূচির দ্বিতীয় দিনে এখানে সরকারি কলেজ খেলার মাঠে তাঁকে দেওয়া এক গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এ আহ্বান জানান।

তিনি রাজনৈতিক দলগুলোর উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আমি মনে করি রাজনৈতিক দলগুলোর নির্বাচনে অংশ নিতে হবে… তাদের জনগণের কাছে যেতে এবং নির্বাচনে অংশ নিতে হবে।’

তিনি রাজনৈতিক দলগুলোর উদ্দেশ্যে বলেন, দেশ এবং দেশের জনগণের বৃহত্তর স্বার্থে আগামী নির্বাচনে ভালো লোকদের মনোনয়ন দিতে আমি রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। গত ২৪ এপ্রিল দ্বিতীয়বারের মতো দেশের রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ নেয়ার পর প্রথম ইটনা সফরে আসায় এলাকাবাসী তাকে সংবর্ধনা জানাতে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

সৎ চরিত্রের, আদর্শবান ও দৃঢ়চিত্তের নেতা নির্বাচন করতে ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে রাষ্ট্রপতি এই সমাবেশে বলেন, ‘আপনাকে এমন সরকার নির্বাচন করতে হবে যারা দেশকে আগামী দিনগুলিতে এগিয়ে যেতে সাহায্য করবে।’

তিনি বলেন, প্রার্থী বাছাই করুণ… এবং যারা আপনার এলাকার উন্নয়নে সহায়তা করবে তাদের ভোট দিন। তিনি আবারো বলেন, ‘বিগত সরকারগুলোর মূল্যায়ন করুণ এবং তারপরে আপনার নেতা বেছে নেওয়ার সঠিক সিদ্ধান্ত নিন।’

রাষ্ট্রপতি প্রায় ৩০ মিনিটের বক্তৃতায় বিভিন্ন অবকাঠামোগত উন্নয়নের পাশাপাশি হাওর অঞ্চলের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কার্যক্রম তুলে ধরেন।

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেন, ‘আজ থেকে ৪৮ বছর আগে আমি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছি। ভোটাররা আমাকে ভোট দিয়ে ৮ বার জাতীয় সংসদে পাঠিয়েছে। আমি দুইবার রাষ্ট্রপতি হয়েছি। আমি এই এলাকার মানুষের কাছে সত্যিই কৃতজ্ঞ।’

তিনি বলেন, হাওর এলাকার পাশাপাশি দেশ ও তাঁর জনগণের সামগ্রিক উন্নয়নের জন্য তিনি কাজ করছেন।

রাষ্ট্রপতি স্থানীয় হাওরে কৃষি উৎপাদনের বাড়ানোর জন্য আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার বৃদ্ধির আহ্বান জানান।

রাষ্ট্রপতি বলেন, সড়ক উন্নয়ন নিশ্চিত করতে হবে, কিন্তু ট্র্যাক্টর সড়ক নষ্ট করে, তাই সড়কে ট্রাক্টর চালানো বন্ধ করার প্রশ্নে কোনো আপস নেই।’

তিনি সড়ক ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকা সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি এই আহ্বান জানান।

হাওর এলাকায় রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল(ইপিজেড) স্থাপনের বিষয়ে রাষ্ট্রপতি সবার আগে দেশের অন্যান্য অংশের সঙ্গে যোগাযোগের উন্নয়নের ওপর গুরুত্ব দেন। এই হাওর এলাকার এক সময় উপেক্ষিত ছিল উল্লেখ করে তিনি এই এলাকার আরও উন্নয়ন নিশ্চিত করতে সকল মানুষের আরও সহযোগিতা চেয়েছেন।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কিশোরগঞ্জ -৪ আসনের সংসদ সদস্য প্রকৌশলী রেজওয়ান আহমদ তাওফিক, কিশোরগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য আফজাল হোসেন, সংসদ সদস্য দিলারা বেগম আসমা, কিশোরগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আইনজীবী মো. জিল্লুর রহমান, ইটনা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান চৌধুরী কামরুল হাসান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. কামরুল আহসান শাহজাহান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খলিলুর রহমান। এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা এম ইসমাইল হোসেন।

এর আগে, উপজেলায় পৌঁছানোর পরে বিকেলে রাষ্ট্রপতি ইটনার নয়টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করেন।
সূত্র : বাসস

Views 36   ফেসবুকে শেয়ার করুন!
সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad