পারস্পরিক সহযোগিতায় রাশিয়া ও ইরান

বাংলার চিঠি ডটকম ডেস্ক॥
এখন থেকে নিজেদের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতায় এগিয়ে আসবে রাশিয়া ও ইরান। কাজাখাস্তানের বন্দরনগরী আকতাউয়ে ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি এবং রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন দ্বিপক্ষীয়, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক নানা ইস্যুতে আলোচনা করেছেন।

কাস্পিয়ান সাগরের সম্পদ বন্টনের বিষয়ে এ সাগর তীরবর্তী পাঁচ দেশের মধ্যে ঐতিহাসিক চুক্তি স্বাক্ষরের মধ্যেই নিজেদের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করেন তারা। খবর পার্স ট্যুডে।

বৈঠকে প্রেসিডেন্ট রুহানি রাশিয়ার সঙ্গে সকল ক্ষেত্রে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরো শক্তিশালী করার আগ্রহ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, সিরিয়ায় উগ্র জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিপক্ষে যুদ্ধে ইরান ও রাশিয়ার মধ্যকার সহযোগিতা ইতিবাচক প্রভাব ফেলেছে এবং আইএস সম্পূর্ণ নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত এই সহযোগিতা অব্যাহত রাখা উচিত।

ওই বৈঠকে ভ্লাদিমির পুতিন তার দেশের সঙ্গে ইরানের ক্রমবর্ধমান সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে বলেন, দ্বিপক্ষীয় স্বার্থের ভিত্তিতে এ সম্পর্ক আরো শক্তিশালী করতে রাশিয়ারও আগ্রহ রয়েছে। তিনি পাশ্চাত্যের সঙ্গে ইরানের স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতাকে একটি আন্তর্জাতিক ও গুরুত্বপূর্ণ চুক্তি হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, যুক্তরাষ্ট্র এ সমঝোতা থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর এখন বাকি দেশগুলোর উচিত কঠিনভাবে এটা বাস্তবায়নে নেমে পড়া।

কাজাখাস্তানের বন্দরনগরী আকতাউয়ে রোববার রাশিয়া, আজারবাইজান, কাজাখস্তান, তুর্কমেনিস্তান ও ইরানের শীর্ষ নেতাদের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তাদের উপস্থিতিতে দুই দশকের বেশি সময় ধরে আলোচনার পর কাস্পিয়ান সাগরের সম্পদ বণ্টন নিয়ে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

ওই চুক্তিতে ২৪টি অনুচ্ছেদ রয়েছে যার মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অনুচ্ছেদ হচ্ছে এই সাগরে বাইরের কোনো দেশের সামরিক উপস্থিতি থাকতে পারবে না। এছাড়া এ সাগর দিয়ে বাইরে কোনো দেশ কোনো সামরিক সরঞ্জাম পরিবহন করতে পারবে না। পাশাপাশি সদস্য দেশগুলোর কেউ তাদের নিজেদের কোনো সামরিক ঘাঁটি বাইরের কোনো দেশের কাছে হস্তান্তর করতে পারবে না।

সূত্র : ডেইলি বাংলাদেশ ডটকম

Views 65   ফেসবুকে শেয়ার করুন!
সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad