আগামী নির্বাচনে জনগণ ভুল করলে বাংলাদেশ হবে হাওয়া ভবনের দেশ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম

সুধী সমাবেশে বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। ছবি : মমিনুল ইসলাম কিসমত

মমিনুল ইসলাম কিসমত, সরিষাবাড়ী ॥
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, সামনের নির্বাচনে দেশের জনগণ ভুল করলে বাংলাদেশ হবে হাওয়া ভবনের দেশ, খালেদার জঙ্গিবাদের দেশ। আলোকিত বাংলাদেশ রাখতে চাইলে এবারেও আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করতে হবে।

তিনি বলেন, ইউরোপ-আমেরিকা-মালয়েশিয়ায় যে পদ্ধতিতে নির্বাচন হয়, বাংলাদেশেও সেই পদ্ধতিতেই শেখ হাসিনার অধীনেই নির্বাচন হবে। এ নির্বাচন হবে ফাইনাল খেলা, রেফারি থাকবে নির্বাচন কমিশন। ২০১৪ সালের নির্বাচন বাঞ্চাল করতে বিএনপি-জামাত নানা চক্রান্ত করেছে, হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদও ডিগবাজী দিয়েছিলেন। তখন নির্বাচন না হলে দেশের গণতন্ত্র থাকতো না, দেশে মার্শাল ল’ আসতো। তেমনি আগামী ডিসেম্বরের নির্বাচন ৭০’র মতো গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন। ৭০’র নির্বাচনে এ দেশের মানুষ ভুল করে নাই, নৌকার বিজয়ের মাধ্যমে এ দেশে স্বাধীনতা এসেছে।

জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলায় ১২ আগস্ট দুপুরে ৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতাল পরিদর্শন শেষে উপজেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগ আয়োজিত সুধী সমাবেশে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ সব কথা বলেন।

মোহাম্মদ নাসিম আরো বলেন, স্বাস্থ্যসেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে আওয়ামী লীগ সরকার কমিউনিটি ক্লিনিক প্রতিষ্ঠা করেছে, বিএনপি তা বন্ধ করে দিয়েছিল। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে পুনরায় তা চালু করে। ১৬ কোটি মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত কষ্টসাধ্য হলেও সরকার সর্বাত্মক চেষ্টা করে যাচ্ছে। শেখ হাসিনা মানেই শক্তি, শান্তি, উন্নয়ন ও স্বাস্থ্যসেবা। নির্বাচনের আগেই আরো ৫ হাজার ডাক্তার নিয়োগ দেওয়া হবে। ডাক্তারদের কাজে অবহেলা সহ্য করা হবে না। গ্রামে খেটে খাওয়া মানুষের পাশে থেকে সেবা দিতে হবে।

সুধী সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম। ছবি : বাংলার চিঠি ডটকম

সুধী সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, বর্তমান সরকার দেশের প্রতিটি জেলায় মেডিকেল কলেজ স্থাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। জামালপুরেও শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এ জেলায় একটি নার্সিং ইন্সটিটিউট ও ৫০ শয্যাবিশিষ্ট নতুন একটি হাসপাতাল স্থাপনের সিদ্ধান্তও চূড়ান্ত।

সমাবেশে অংশগ্রহণকারীবৃন্দ। ছবি : বাংলার চিঠি ডটকম

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) কবির উদ্দিনের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সুভাষ চন্দ্র সরকার, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক প্রফেসর চিকিৎসক এনায়েত হোসেন, সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মাওলানা নুরুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছানোয়ার হোসেন বাদশা ও সাধারণ সম্পাদক উপাধ্যক্ষ হারুন-উর-রশিদ, সাবেক সংসদ সদস্য চিকিৎসক মুরাদ হাসান, ময়মনসিংহ স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক চিকিৎসক আব্দুল গণি, জামালপুর শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. আব্দুল ওয়াকিল, উপজেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি অধ্যক্ষ আবদুর রশীদ ও সহসভাপতি অধ্যক্ষ লুৎফর রহমান, সিভিল সার্জন চিকিৎসক গৌতম রায়, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ফিরোজ আল মামুন, সরিষাবাড়ী পৌরসভার মেয়র রুকুনুজ্জামান রোকন প্রমুখ।

Views 66   ফেসবুকে শেয়ার করুন!
সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad