দেওয়ানগঞ্জে শিশু ধর্ষণকারী শফিকুল গ্রেপ্তার, শিশুটিকে ময়মনসিংহ মেডিক্যালে রেফার্ড

দেওয়ানগঞ্জে গ্রেপ্তার শিশু ধর্ষণকারী শফিকুল ইসলাম। ছবি : বাংলার চিঠি ডটকম

নিজস্ব প্রতিবেদক, জামালপুর ॥
জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জে দিনেদুপুরে ধর্ষণের শিকার ১১ বছরের মেয়েশিশুটিকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ১ আগস্ট রাতে জামালপুর জেনারেল হাসপাতাল থেকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে। ১ আগস্ট দুপুরে উপজেলার চরভবসুর ঠোটাপাড়া এলাকায় এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর আসমা আক্তার বাদী হয়ে শিশুটির ধর্ষণকারী শফিকুল ইসলামকে আসামি করে ১ আগস্ট রাতে দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর পুলিশ ২ আগস্ট ভোর সাড়ে চারটার দিকে উপজেলার বাহাদুরাবাদ ইউনিয়নের মদনের চর গ্রাম থেকে শফিকুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে। শফিকুল চরভবসুর ঠোটাপাড়া গ্রামের মৃত তারা মিয়ার ছেলে। ২ আগস্ট দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জামালপুর জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

শিশুটির পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চরভবসুর এলাকার বখাটে শফিকুল ইসলাম (৩৫) ১ আগস্ট দুপুর দু’টার দিকে প্রতিবেশী এক ভিক্ষুক পরিবারের মেয়েশিশুকে ফুসলিয়ে তার ঘরে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। শিশুটির চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে গেলে ধর্ষক শফিকুল পালিয়ে যায়। ১ আগস্ট সন্ধ্যায় শিশুটিকে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে শিশুটি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে কর্তব্যরত প্রসূতি ও স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ফাখরিয়া আলম ১ আগস্ট রাত সাড়ে আটটার দিকে তাকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন।

দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ও মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা মো. শহীদুর রহমান বাংলার চিঠি ডটকমকে বলেন, ‘চরভবসুর গ্রামের ওই শিশুটির ধর্ষণকারী গ্রেপ্তার শফিকুল ইসলামকে আদালতের মাধ্যমে জামালপুর জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।’

Views 44   ফেসবুকে শেয়ার করুন!
সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad