দেওয়ানগঞ্জে ধর্ষণের শিকার এক শিশু মুমূর্ষু অবস্থায় জামালপুর হাসপাতালে ভর্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক, জামালপুর ॥
জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলায় দিনেদুপুরে হতদরিদ্র পরিবারের ১২ বছরের এক মেয়েশিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। ১ আগস্ট দুপুরে উপজেলার চরভবসুর ঠোটাপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। শিশুটিকে ১ আগস্ট সন্ধ্যায় জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শিশুটির পারিবারিক ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চরভবসুর এলাকার বখাটে শফিকুল ইসলাম (৩৫) ১ আগস্ট দুপুর দু’টার দিকে প্রতিবেশী এক ভিক্ষুক পরিবারের মেয়েশিশুকে ফুসলিয়ে তার ঘরে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। স্থানীয়রা মেয়েটির চিৎকারে এগিয়ে গেলে ধর্ষক শফিকুল দৌঁড়ে পালিয়ে যায়। শফিকুল ওই গ্রামের মৃত তারা মিয়ার ছেলে।

ওই শিশুটির মা ও প্রতিবেশীরা শিশুটিকে গুরুতর রক্তাক্ত অবস্থায় প্রথমে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে সেখান থেকে তাকে স্থানান্তর করে সন্ধ্যায় জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স নাজনীন জামান বাংলার চিঠি ডটকমকে বলেন, ‘শিশুটির যৌনাঙ্গে প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছে। তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসাসেবা দেওয়া হচ্ছে।’

জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক চিকিৎসক সিরাজুল ইসলাম বাংলার চিঠি ডটকমকে বলেন, ‘ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষাসহ সব ধরনের চিকিৎসা দেওয়া হবে।’

দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম আমিনুল হক বাংলার চিঠি ডটকমকে বলেন, ‘চরভবসুর গ্রামে এক শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে শুনেছি। শিশুটির পরিবারের পক্ষ থেকে পাওয়া প্রাথমিক তথ্যের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্ত করছি। এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

এদিকে এ ঘটনার তীব্র নিন্দা এবং ধর্ষককে অতি দ্রুত গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন উন্নয়ন সংঘের মানবসম্পদ বিভাগের পরিচালক ও বিশিষ্ট মানবাধিকারকর্মী জাহাঙ্গীর সেলিম। তিনি জানান, উন্নয়ন সংঘের আইআইআরসিসিএল প্রকল্পের পক্ষ থেকে ভিকটিমকে আইনগত ও স্বাস্থ্য সহায়তা প্রদান করা হবে।

Views 44   ফেসবুকে শেয়ার করুন!
সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad