মাদক নিয়ে এরশাদও কম খেলেননি : শেরপুরে কৃষিমন্ত্রী

মেধাবী শিক্ষার্থীদের ঈদ উপহার বিতরণ করেন কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী। ছবি : বাংলারচিঠি ডটকম
মেধাবী শিক্ষার্থীদের ঈদ উপহার বিতরণ করেন কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী। ছবি : বাংলারচিঠি ডটকম

সুজন সেন, শেরপুর ॥
মাদক নিয়ে এরশাদ সাহেবও কম খেলা খেলেননি বলে মন্তব্য করেছেন কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী। তিনি ১০ জুন বিকেলে শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার পলাশিকুড়া জনতা উচ্চবিদ্যালয় মাঠে শিক্ষার্থী ও অসহায় গরীব দুস্থদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে এ মন্তব্য করেন।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের মানুষ খেয়ে পড়ে সুখেই আছে। শুধু অসুখ হলো জঙ্গি ও মাদক ব্যবসায়ীদের। আল্লাহর রহমতে আমরা জঙ্গি সন্ত্রাস বন্ধ করেছি। জঙ্গিরা নির্বাচন বানচাল করতে চেয়েছিল, সেটাও বন্ধ করেছি। সেই জঙ্গি ও মাদক ব্যবসায়ীরা এখন আর হুটহাট করতে পারে না। তবে তারা থেমে নেই, আমরাও থেমে নেই। শেখ হাসিনা মাদকের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নেমেছেন। তিনি যেমন জঙ্গি ও অগ্নি সন্ত্রাস নিয়ন্ত্রণ করেছেন, ঠিক তেমনি মাদকও নিয়ন্ত্রণ করে একটি সুখি সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়বেন।

তিনি আরও বলেন, অনেকে অনেক কথা লেখেন, ইতোমধ্যে অনেকে মানবাধিকার নিয়ে আর্টিকেল লিখে ফেলেছেন। এ সময় তিনি লেখকদের উদ্দেশে প্রশ্ন রেখে বলেন, একজন মাদকাসক্ত মাদকের টাকার জন্য তার মা কে খুন করলো, মায়ের কি মানবাধিকার নেই? সে (মাদকাসক্ত) খুন করলো আর তার মানবাধিকারের জন্য এখন কাঁদতে হবে? এক পুলিশ কর্মকর্তার মাদকাসক্ত কন্যা ঐশির প্রসঙ্গ টেনে এনে মতিয়া বলেন, ঐশি মাদকাসক্ত হয়ে তার বাবা মাকে খুন করে ফেললো। এখন ঐশির মানবাধিকারের জন্য কাঁদতে হবে? ওই বাবা মা যে খুন হয়ে গেল, তাদের কি মানবাধিকার নাই? মাদকব্যবসায়ী ও মাদকাসক্তরা শুধু তাদের সংসারকেই ধ্বংস করছে না, দেশকেও ধ্বংস করছে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক জন কেনেডি জাম্বেল, পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম, সহকারী পুলিশ সুপার (নালিতাবাড়ী সার্কেল) জাহাঙ্গীর আলম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তরফদার সোহেল রহমান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোখলেছুর রহমান রিপন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জিয়াউল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক প্রমুখ।

এ দিন মন্ত্রী উপজেলার তিনটি ইউনিয়ন ও পৌরসভায় মেধাক্রম অনুসারে অষ্টম শ্রেণির ২২৯ জন শিক্ষার্থীকে থ্রিপিছ, নবম শ্রেণির ২১০ জন শিক্ষার্থীকে শাড়ি এবং দশম শ্রেণির ২১০ জনকে নগদ ৫০০ টাকা করে বিতরণ করেন। এ ছাড়া অসহায় গরীব দুঃস্থদের মাঝে ঈদের উপহার শাড়ি, লুঙ্গি ও ট্রাউজার বিতরণ করেন।