শ্যালিকা শ্লীলতাহানী মামলায় ভগ্নিপতি শ্রীঘরে

সুজন সেন, শেরপুর ॥
শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলায় শ্যালিকাকে শ্লীলতাহানীর মামলায় ভগ্নিপতিকে শ্রীঘরে পাঠিয়েছে আদালত। ১৪ মে তাকে (ভগ্নিপতিকে) আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। ঘটনাটি ঘটে উপজেলার হাতিপাগার গ্রামে সপ্তম শ্রেণি পড়ুয়া এক ফুফাতো শ্যালিকার সাথে মামাতো ভগ্নিপতির। ১৩ মে বিকেলে শ্লীলতাহানীর ঘটনায় মামলা দায়ের হলে রাতেই এলাকাবাসী ওই লম্পট ভগ্নিপতিকে আটক করে পুলিশে দেয়।

পুলিশ জানায়, হাতিপাগার গ্রামের জনৈক দিনমজুরের কন্যা ও স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ওই শিক্ষার্থী ১৩ মে বিকেলে একাকী ঘরে বসে পড়াশোনা করছিল। এসময় বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে তার মামাতো ভগ্নিপতি ও পার্শ্ববর্তী দাওধারা-কাটাবাড়ি গ্রামের রমজান আলী (৩৫) ঘরে ঢুকে পেছন দিক থেকে ঝাপটে ধরে এবং ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। একপর্যায়ে ওই স্কুলছাত্রী চিৎকার করলে স্বজনেরা ছুটে আসে এবং লম্পট ভগ্নিপতি দৌঁড়ে পালিয়ে যায়। পরে সন্ধ্যায় এলাকাবাসী রমজানকে আটক করে পুলিশে দেয়।

এদিকে স্কুলছাত্রীর পিতা বাদী হয়ে রাতেই থানায় মামলা দায়ের করলে ১৪ মে রমজানকে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

নালিতাবাড়ী থানার দ্বিতীয় কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) নজরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।