‘পথের পাঁচালি’ বিশ্বের সেরা ১০০ ছবির তালিকায়

বাংলারচিঠি ডটকম ডেস্ক॥
‘পথের পাঁচালি’ সত্যজিৎ রায়ের এক অনন্য সৃষ্টি। এ জন্য তাকে বহু কাঠখড় পোড়াতে হয়েছিল। এ ছবির গল্প, চিত্রায়ন দর্শকদের মনে এখনও দাগ কাটে। এজন্য ‘চিরন্তন ক্লাসিক’ খ্যাতি পাই ‘পথের পাঁচালি’। ছবি নির্মাণের ৬৩ বছর পেরিয়ে গেলেও বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ ১০০ ছবির তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে অপু-দুর্গা আর তাদের নিশ্চিন্দিপুরের কালজয়ী গল্প।

সম্প্রতি, বিদেশি ভাষার সেরা ১০০ ছবির তালিকা প্রকাশ করেছে বিবিসি। সেখানে ২৪টি দেশের ৬৭ জন পরিচালকের ১৯টি ভাষার ছবি স্থান পেয়েছে। তার মধ্যেই রয়েছে মানিক বাবুর এই অদ্বিতীয় কীর্তি। ‘পথের পাঁচালি’ রয়েছে ১৫ নম্বরে।

প্রথম স্থান অধিকার করেছে আকিরা কুরোসওয়ার ‘সেভেন সামুরাই’। তবে ‘ওয়াইল্ড স্ট্রবেরিজ’ ও ‘ব্যাটেলশিপ পোটেমকিন’-এর মতো ছবিকে পিছনে ফেলে দিযেছে ‘পথের পাঁচালি’। সত্যজিৎ রায়ের সঙ্গে তালিকায় রয়েছে ইঙ্গমার বার্গম্যান, ফেদরিকো ফেলিনি, সের্গেই আইজেনস্টাইনের মতো বিশ্ববিখ্যাত পরিচালকের নাম।

উল্লেখ, সত্যজিৎ রায়ের প্রথম ছবি ছিল ‘পথের পাঁচালি’। প্রথম ছবিতেই অনেক বাঁধার সম্মুখীন হয়েছিলেন তিনি। ছবির জন্য হিরো থেকে বেরিয়ে অভিনেতা খুঁজেছিলেন তিনি। তার জন্য টালিগঞ্জের পেশাগত অভিনেতাদের বাইরেও সন্ধান করেছিলেন। তারই ফলশ্রুতি ইন্দির ঠাকরুন ও অপু।

আবহ সংগীত নিয়েও তিনি পরীক্ষা চালিয়েছিলেন। আগাগোড়া হিন্দুস্তানী ক্লাসিকের সুর মূর্ছনায় ছবিটি সাজিয়েছিলেন পণ্ডিত রবিশংকর। কিন্তু, অর্থ এ দুই কিংবদন্তি শিল্পীকে সমস্যায় ফেলেছে বারবার। কতবার যে ছবির শুটিং বন্ধ হয়েছে। শেষ পর্যন্ত ১৯৫৫ সালে ছবিটি মুক্তি পায়।
সূত্র : এবিনিউজ

sarkar furniture Ad
Green House Ad