চার মাসের নিষেধাজ্ঞা পেলেন আহমেদ শেহজাদ

বাংলার চিঠি ডটকম ডেস্ক॥
ডোপ টেস্টে পজিটিভ প্রমাণ হওয়ায় চার মাসের নিষেধাজ্ঞা পেলেন পাকিস্তানি ওপেনার আহমেদ শেহজাদ। ফলে, আগামী ১০ নভেম্বর পর্যন্ত তিনি কোন ম্যাচ খেলতে পারবেন না। পাকিস্তানের এই ব্যাটসম্যান ক্রিকেট বোর্ডের দেওয়া শাস্তি মেনে নিয়েছেন।

চারমাসের নিষেধাজ্ঞা পেলেও এটি কার্যকরের সময় ধরা হয়েছে ১০ জুলাই থেকে। সেই হিসেবে ১০ নভেম্বর পর্যন্ত মাঠের বাইরে থাকতে হবে তাকে। অন্যভাবে হিসেব করলে শেহজাদকে নিষেধাজ্ঞায় থাকতে হচ্ছে মাস খানেক। শেহজাদের ডোপ টেস্টের জন্য নমুনার রিপোর্ট পাওয়ার পরের সময় ধরে তাকে শাস্তি দেওয়া হয়েছে।

তবে পিসিবি জানিয়েছে, শেহজাদ পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের নিয়ম ভেঙেছে। ২৬ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যানের খারাপ কোন উদ্দেশ্য ছিল না। সে ক্রিকেটের সঙ্গে প্রত্যারণা করেনি বা নিজের পারফরমেন্স বাড়ানোর জন্য বল বর্ধক কোন ওষুধ নেয়নি।

পাকিস্তানের ঘরোয়া ওয়ানডে লিগ পাকিস্তান কাপের আগে তাদের ডোপ টেস্টের নমুনা গ্রহণ করা হয়। শেহজাদের নমুনা নেওয়া হয় গত ৩ মে’তে। এরপর তার নমুনা পরীক্ষা করে ১১ জুন তিনি ডোপ নিয়েছেন বলে প্রমাণ পাওয়া যায়। স্কটল্যান্ডে থাকা পাকিস্তান ওপেনার এরপর ১২ এবং ১৩ জুন স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে টি২০ ম্যাচে অংশ নেন। কিন্তু অস্ট্রেলিয়া এবং জিম্বাবুয়ে সিরিজ থেকে বাদ পড়েন তিনি।

এরপর জুলাই থেকে নভেম্বর পর্যন্ত চার মাসের নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হলো তাকে। শেহজাদ পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের দেওয়া শাস্তি মেনে নিয়ে এক টুইট করেছেন। তাতে তিনি লিখেছেন, নিষেধাজ্ঞার পর যতদ্রুত সম্ভব আমি ক্রিকেটে ফিরবো। পাকিস্তান বোর্ডকে না জানিয়ে তিনি ওষুধ সেবন করেছিলেন। একজন অভিজ্ঞ ক্রিকেটার হিসেবে তার এটা করা ঠিক হয়নি বলেও মনে করেছেন তিনি।
সূত্র : ডেইলি বাংলাদেশ

sarkar furniture Ad
Green House Ad