আত্মহত্যা প্রতিরোধে মানসিক স্বাস্থ্যকে গুরুত্ব দিতে হবে : বীরেন শিকদার

বাংলার চিঠি ডটকম ডেস্ক॥
যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ড. শ্রী বীরেন শিকদার বলেছেন, আত্মহত্যা প্রতিরোধে মানসিক স্বাস্থ্যকে গুরুত্ব দিতে হবে। এটি প্রতিরোধ করে জীবনকে জয় করতে হয়। সংগ্রামী মানুষ কখনো আত্মহত্যা করে না।

১০ সেপ্টেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে বিশ্ব আত্মহত্যা প্রতিরোধ দিবস উপলক্ষে ‘ব্রাইটার টুমোরো ফাউন্ডেশন’ (বিটিএফ) ও দি গ্রেট বাংলাদেশ রান এর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত ‘জীবন বাঁচাতে দৌঁড়’-এর সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষ জীবন জয়ের স্বপ্ন দেখা শুরু করেছে। সাহসী জাতি হিসেবেও বিশ্বে পরিচিত। এ দেশে হতাশা ও আত্মহত্যার কোনো স্থান নেই।

বিটিএফ এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জয়শ্রী জামানের সভাপতিত্বে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক চিকিৎসক হেলাল উদ্দিন আহমেদ, সংগীত শিল্পী সামিনা চৌধুরী, ইউনিভার্সাল মেডিক্যালের ব্যবস্থাপক চিকিৎসক আশীষ কুমার চক্রবর্তী, আল কাদেরীয়া লিমিটেডের চেয়ারম্যান ফিরোজ আলম সুমন, এভারেস্ট জয়ী নিশাত মজুমদার এবং জাতীয় দলের ক্রিকেটার তাসকিন আহমেদ বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা আত্মহত্যা প্রতিরোধে সমাজের সকলস্তরে মানসিক স্বাস্থ্যের প্রতি গুরুত্বারোপ এবং দিবসটিকে জাতীয়ভাবে পালনের দাবি জানান।

আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, আত্মহত্যা প্রতিরোধে সবাই এগিয়ে এলে এবং সচেতন হলে পৃথিবীতে একসময় আত্মহত্যা বিষয়টি থাকবে না।

জয়শ্রী জামান দেশে একটি সার্বজনীন কাউন্সেলিং সেন্টারের প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরে বলেন, যারা আত্মহত্যা করে থকে তাদের নির্ভর করার মতো কোনো জায়গা থাকে না। এই ধরনের প্লাটফর্ম থাকা জরুরী।

কর্মসূচির অংশ হিসেবে সকাল ছয়টায় অপরাজেয় বাংলার সামনে থেকে রান (দৌঁড়) শুরু হয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই জায়গায় শেষ হয়। এ রানে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ অংশ নেন।
সূত্র : বাসস

sarkar furniture Ad
Green House Ad